Categories
লাইফস্টাইল

মুখের দাগ দূর করার উপায়

মুখের দাগ দূর করার উপায় – ধুলো-ময়লা, প্রখর রোদ ও দূষণের কারণে মুখের ত্বকে দেখা দেয় পিগমেন্টেশন সমস্যা। এ ছাড়া ব্রণ বা অন্য কোনো রোগের কারণেও মুখের ত্বকে দাগ হতে পারে।

আরও বেশ কিছু কারণেও মুখের ত্বকে দাগছোপ দেখা দেয়। দাগ আটকানোর কিছু উপায় থাকলেও সব সময় তা কাজ করে না।

মুখের দাগ নিয়ে অনেক মানুষকে দুশ্চিন্তায় থাকতে দেখা যায়। রোদে পুড়ে, ব্রণ থেকে, বয়সের কারণে মুখে দাগ হতে পারে।

বাজারে দাগ ওঠানো অনেক ক্রিম কিনতে পাওয়া গেলেও তার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে অনেক বেশি। এজন্য চেষ্টা করুন ঘরোয়া উপায়ে মুখের দাগ দূর করতে।

দাগ দূর করতে ঘরোয়া চিকিৎসা শুরুর আগে জানতে হবে দাগ কেন হচ্ছে। মুখে দাগ হওয়ার পিছনে সাধারণ কিছু কারণ চলুন জেনে নেওয়া যাক।

মুখের দাগ দূর করার উপায়

রোদ:

ত্বকের নিদাগ উজ্জ্বলতার সবচেয়ে বড়ো শত্রু হচ্ছে সূর্যের চড়া আলো। রোদে বেরনোর আগে অতি অবশ্যই মুখসহ শরীরের সব খোলা অংশে সানস্ক্রিনের প্রলেপ লাগান।

সাঁতার কাটার সময় ব্যবহার করুন ওয়াটারপ্রুফ সানস্ক্রিন।

আরো পড়ুনঃ   গর্ভবতী হওয়ার প্রথম সপ্তাহের লক্ষণ সমূহ

হরমোনের ভারসাম্যহীনতা:

হরমোনের অতিরিক্ত বেশি বা কম ক্ষরণের জন্য আপনার ত্বকে গাঢ়রঙের দাগ-ছোপ পড়তে পারে।

প্রেগন্যান্সি বা মেনোপজ়ের কারণেও হরমোনের স্তরে ভারসাম্যের অভাব দেখা দেয়।

এর ফলে মেলানিনের উৎপাদনেও সাম্য থাকে না। ফলে মুখে, কাঁধে, গলায় ছোপ-ছোপ দাগ দেখা দিতে পারে।

ত্বককে রোমহীন রাখার অনন্ত প্রচেষ্টা:

বহু মহিলাই ত্বকের বাড়তি রোমের আস্তরণ সরিয়ে ফেলতে চান। সে কারণে রোম তোলার ক্রিম, টুইজ়ার, ওয়্যাক্স ইত্যাদি নানা পদ্ধতির সাহায্য নেওয়া হয়।

কিন্তু নিরন্তর এই প্রচেষ্টা চালাতে গিয়ে ত্বকের স্পর্শকাতরতা বাড়ে। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ে দাগ-ছোপের আশঙ্কাও।

ব্রণ বা চোট-আঘাতের দাগ:

ব্রণ বা ফোড়া হলে খুঁটবেন না, হাত লাগাবেন না বেশি। তা হলে কিন্তু দাগ চট করে মিলিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও কমে যায়।

আলুর রস:

আলু খুব ভালো করে ধুয়ে ছেঁচে রস বের করে নিন। তার পর সরাসরি সেই রস লাগিয়ে নিন দাগ-ছোপে।

মিনিট দশেক অপেক্ষার পর ধুয়ে ফেলতে পারেন। ফেস প্যাক বানানো যায় আলুর রস, মধু আর লেবুর রস দিয়েও।

►► চুল গজানোর উপায়
►► আপেল সিডার ভিনেগার

আরো পড়ুনঃ   চুল গজানোর উপায়

অ্যালো ভেরা জেল:

অ্যালো ফেরা জেলও দাগ-ছোপ তাড়াতে খুব কার্যকর। সরাসরি অ্যালো ভেরা পাতা থেকে জেল বের করে নিয়ে ত্বকে লাগাতে পারেন। অ্যালো ভেরা জেল, চিনি আর লেবুর রসের মিশ্রণ তৈরি করে লাগিয়ে নিন ত্বকে।

আমন্ডের তেল:

রাতে শুতে যাওয়ার আগে ময়েশ্চরাইজ়ারের বদলে কয়েক ফোঁটা সুইট আমন্ড অয়েল ব্যবহার করে দেখুন, চোখে পড়ার মতো ভালো ফল পাবেন।

বাদাম তেল:

বাদাম তেল ভিটামিন ই এর একটি সমৃদ্ধ উৎস, যা মুখের দাগ দ্রুত কমাতে এবং ত্বকের গঠন উন্নত করতে সাহায্য করে।

প্রতিদিন কালো দাগের উপর বাদাম তেল ঘষুন, অথবা আপনার প্রতিদিনের ময়েশ্চারাইজারে কয়েক ফোঁটা বাদামের তেল যোগ করুন।

নিজেই কয়েকদিনের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারবেন।

এসব ঘরোয়া উপায়ে কাজ না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন কালো দাগ দূর করতে।

অনুগ্রহ করে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন।  আমাদের ফেসবুক পেইজ এ লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.